11:58 am - Monday September 25, 2017

Breaking :

তিস্তার পানি বিপদসীমার ১০ সেন্টিমিটার উপরে প্রবাহিত

Tistaসাত দিন আগের বন্যার রেশ কাটতে না কাটতে তিস্তার নদীর পানি ফের বিপদসীমার অতিক্রম করেছে। এতে তিস্তা অববাহিকার বসবাসরত নীলফামারীর ডিমলা ও জলঢাকা উপজেলার ১০টি ইউনিয়নের প্রায় ১৫ হাজার পরিবার পুনরায় বন্যা কবলিত হয়ে পড়েছে। শনিবার উজানের ঢলে সকাল ৬টা থেকে ডালিয়া পয়েন্টে তিস্তার পানি বিপদসীমার (বিপদসীমা ৫২ দশমিক ৪০ মিটার) ১০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। যা সকাল ৯টায় ৩ সেন্টিমিটার কমে বিপদসীমার ৭ সেন্টিমিটার উপরে রয়েছে বলে জানায় ডালিয়স্থ পানি উন্নয়ন বোর্ডের বন্যা পুর্বাভাস ও সর্তকীকরণ কেন্দ্র।

গত পহেলা জুলাই বিকাল থেকে তিস্তার পানি বিপদসীমা অতিক্রম করেছিল যা বিপদসীমার ৪৫ সেন্টিমিটার উপরে ছিল। এটি অব্যাহত ছিল ৪ জুলাই পর্যন্ত। এরপর তিস্তার পানি বিপদসীমার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হয়ে আসছিল। ওই বন্যার রেশ কেটে যাওয়ার ৭ দিনের মাথায় আজ শনিবার তিস্তা পুনরায় বিপদসীমা অতিক্রম করে প্রবাহিত হচ্ছে।

তিস্তা পারের আব্দুর রশিদ জানান, গত কয়েকদিন ধরে এলাকায় কোন বৃষ্টি নেই। হঠাৎ করে উজানের ঢলে শনিবার ভোর থেকে পুনরায় তিস্তা নদীতে বন্যা দেখা দিয়েছে। এতে ডিমলা উপজেলার পূর্ব ছাতনাই, পশ্চিম ছাতনাই, খালিশা চাপানী, টেপাখড়িবাড়ি, গয়াবাড়ি, খগাখড়িবাড়ি, জলঢাকা উপজেলার গোলমুন্ডা, ডাউবাড়ি, শৌলমারী ও কৈমারী ইউনিয়নের নি¤œাাঞ্চল এবং চরবাসীরা বন্যা কবলিত হয়ে পড়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের ডালিয়া ডিবিশনের নির্বাহী প্রকৌশলী মোস্তাফিজুর রহমান জানান, উজানে ঢলে তিস্তা বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় দেশের সর্ব বৃহৎ তিস্তা ব্যারাজের ৪৪ টি সুইট গেট খুলে রাখা হয়েছে। -Jugantor

Filed in: Uncategorized
Facebook Comment

No comments yet.

Leave a Reply

You must be logged in to post a comment.